24 February 2024

মঙ্গলবার, ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

সহিংসতা বন্ধের একমাত্র পথ তত্ত্বাবধায়ক সরকার: ফখরুল

Share

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সহিংসতা বন্ধ করার জন্য একটি মাত্র পথ, সেটা হলো নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা আবার চালু করা।

মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ বলছে—তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা সংবিধানে নেই। কিন্তু তারা কি ভুলে গেছে, সংবিধান পরিবর্তন করেই তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা সংযুক্ত করা হয়েছিল। বিএনপিই সংবিধান বদল করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা করেছিলো। এখন আওয়ামী লীগ সংসদে মেজরিটি আছে, সুতরাং খুব সহজেই তারা সংবিধান পরিবর্তন করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা সংযুক্ত করতে পারে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ইতিহাস বলে, বিরোধীদলের ওপর এ ধরনের অত্যাচার-নির্যাতন চালিয়ে এবং জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে কোনো সরকারই বেশিদিন ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি।

তিনি বলেন, ভোলায় মিছিলে গুলি হওয়ার পরও সাধারণ মানুষ ভয় পায়নি। নেতাকর্মীরাও ভয় পাননি। সরকার একইভাবে সারা দেশে আন্দোলনকারীদের ওপর গুলিসহ বিভিন্ন ধরনের নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে। এখন শুধু শহরে নয়, গ্রাম-ইউনিয়ন পর্যন্ত বড় বড় মিছিল হচ্ছে। আমরা মনে করি, মানুষ জেগে উঠেছে, এটাই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এই সরকারকে দাবি মেনে নিতে বাধ্য করব।

মির্জা ফখরুল বলেন, জনগণের দাবি খুবই সামান্য। নির্বাচনকে ঠিক করা, সুস্থ করা। যাতে মানুষ নিজের ইচ্ছে মতো ভোট দিতে পারে। নির্বাচনকালীন সময়ে আওয়ামী লীগ যদি ক্ষমতা থাকে তাহলে সেই নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। সুতরাং তাদের পদত্যাগ করে নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *