Share

রেলের অব্যবস্থাপনা ও অনিয়মের বিরুদ্ধে আন্দোলন করে আসা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থী মহিউদ্দিন রনির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

রোববার (২৪ জুলাই) বিকেলে তিনি কমলাপুর স্টেশনে গিয়ে রনি সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করলেও কর্তৃপক্ষ তাকে স্টেশনের ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়নি।

সন্ধ্যায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত স্টেশনের বাইরে তিনি অবস্থান করছিলেন।

কমলাপুর জিআরপি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাজহারুল হক বলেন, এখানে যেন কোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা সৃষ্টি না হয় সেজন্য আমরা সতর্ক অবস্থানে আছি।

জানা গেছে, বিকেলে রনিকে নিয়ে জাফরুল্লাহ কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজারের সঙ্গে দেখা করার জন্য হুইলচেয়ারে বসে ভেতরে প্রবেশ করতে চান। কিন্তু গেট বন্ধ করে দেওয়া হয়। ভেতরে প্রবেশ করতে না পেরে শেষ পর্যন্ত তিনি স্টেশনের বাইরে রনির সঙ্গে অবস্থান করছিলেন।

এসময় জাফরউল্লাহ অভিযোগ করে গণমাধ্যমের কাছে বলেন, আমরা আন্দোলন করার জন্য আসিনি। আমরা চাচ্ছি একটি অব্যবস্থাপনার উন্নতির জন্য, দুর্নীতির অপসারণ চাই। জনগণের জন্য সুযোগ সুবিধা চায়। অনুমতি না দেওয়া পর্যন্ত এখানেই অবস্থান নিয়ে থাকবো। স্টেশন ম্যানেজার যদি রনির ৬ দফা দাবি মেনে নেয় তাহলে আমি রনিকে অনুরোধ করব আন্দোলন স্থগিত করার।

উল্লেখ্য, ৭ জুলাই রেলের অব্যবস্থাপনা ও যাত্রী হয়রানির প্রতিবাদে হাতে শিকল বাধা অবস্থায় কমলাপুর স্টেশনে অবস্থান নেয় মহিউদ্দিন রনি। এ নিয়ে পড়ে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠে। পরে আন্দোলনে রনির সহপাঠীরাও যোগদান করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *