21 May 2024

মঙ্গলবার, ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

ইরানে কোরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম বাংলাদেশের হাফেজ বশির

Share

ফটোনিউজবিডি ডেস্ক:

ইরানের রাজধানী তেহরানে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করেছে বাংলাদেশি কিশোর হাফেজ বশির আহমাদ। প্রতিযোগিতায় ৩০ পারা কোরআন গ্রুপে ১১০ দেশের প্রতিযোগীদের মধ্যে বশির প্রথম হয়েছে।

মাত্র পাঁচ মাসে হিফজ শেষ করেছিল বশির। সে ঢাকার মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদরাসার শিক্ষার্থী।

গতকাল বুধবার প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করে দেশটির রাষ্ট্রীয় আয়োজক কমিটি। ঢাকা পোস্টকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাফেজ বশির আহমাদের শিক্ষক ও দেশের স্বনামধন্য হিফজ-শিক্ষক শায়খ নেছার আহমাদ আন নাছিরি।

প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় হয়েছেন ইরানের সাঈদ মোহাম্মদ সাদেক এবং তৃতীয় হয়েছেন নাইজেরিয়া আব্দুলাহি আব্দুলাহি গারায়ী।

এর ১০ দিন আগে আলজেরিয়ার রাজধানী আলজিয়ার্সে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় তৃতীয় হয়েছিল বশির। ২০২২ সালে হুফফাজুল কোরআন ফাউন্ডেশনের প্রতিযোগিতায় বশির প্রথম স্থান অর্জন করেছিল।

হাফেজ বশির আহমাদ হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলার বেগুনাই গ্রামের মো.আব্দুর রশিদ চৌধুরী ও বুশরা চৌধুরী দম্পতির ছেলে।

আগামী শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দেশে ফিরবেন বিশ্বজয়ী হাফেজ বশির আহমাদ। সকাল ৮টায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তার অবতরণের কথা রয়েছে। এ সময় তাকে ঢাকার মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদরাসা ও কোরআনপ্রেমীদের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা জানানোর আয়োজন করা হয়েছে।

হাফেজ বশির আহমাদের শিক্ষক শায়খ নেছার আহমাদ আন নাছিরির পক্ষ থেকে সবাইকে সংবর্ধনায় উপস্থিত থাকার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

তেহরানে ১৯৮২ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি মালয়েশিয়া, বাংলাদেশ, ভারত, ইরাক, সিরিয়া, গিনি, আলজেরিয়া ও লিবিয়া এই ১২ দেশের প্রতিযোগীদের নিয়ে তেহরান হোসেইনিয়েহ এরশাদে আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতা শুরু হয়।

বর্তমানে এর পরিধি বেড়ে বিভিন্ন দেশের কোরআন তেলাওয়াতকারীদের সপ্তাহব্যাপী অংশগ্রহণে কোরআন তেলাওয়াতের এই আন্তর্জাতিক আয়োজন করা হয়।