Share

ফটোনিউজবিডি ডেস্ক:

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দাবি করেছেন, পূর্বাঞ্চলীয় শহর ওয়াজিরাবাদে একটি প্রতিবাদ মিছিলে তাকে হত্যার জন্য তিন বন্দুকধারী এসেছিলেন।

পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খানের ওপর গত ৩ নভেম্বর পাঞ্জাবের ওয়াজিরাবাদ এলাকায় বন্দুকধারীরা হামলা চালায়। সে সময় ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিবিদ বনে বসা ইমরান খানের ডান পায়ে গুলি লাগে।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) রাতে এক বিশাল জনসভায় ভাষণ দিতে গিয়ে ইমরান খান বলেন, দুই হামলাকারীকে আগেই চিহ্নিত করা হয়েছিল। তাদের মধ্যে একজন আমাকে এবং অন্যান্য পিটিআই নেতাদের লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছিল। দ্বিতীয় বন্দুকধারী কন্টেইনারের সামনের দিকে গুলি চালায়।

হামলার পরদিন লাহোরের শওকত খানম হাসপাতাল থেকে সমর্থকদের উদ্দেশ্যে দেওয়া ভাষণে ইমরান খান বলেছিলেন, দুই বন্দুকধারীর হামলা চালিয়েছে তার ওপর। তার ডান পায়ে চারটি গুলি লেগেছে। সে সময় তিনি আরও বলেন, হামলার সময় তিনি একটি কন্টেইনারের ওপর দাঁড়িয়ে ছিলেন।

হামলার ঘটনার পর থেকেই ইমরান খান দাবি করে আসছেন পাকিস্তানের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরীফ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রানা সানাউল্লাহ এবং আইএসআই কাউন্টার ইন্টেলিজেন্স উইংয়ের প্রধান মেজর জেনারেল ফয়সাল নাসির ওই ঘটনায় জড়িত ছিলেন।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া।